প্রথম পাতা , ব্রেকিং নিউজ , হাজীগঞ্জ

হাজীগঞ্জে অবসরপ্রাপ্ত জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুর রশিদ পাটওয়ারীর জানাযা অনুষ্ঠিত

person access_time 1 month ago access_time Total : 49 Views

স্টাফ রিপোর্টার ঃ চাঁদপুর জেলার অবসরপ্রাপ্ত প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার (ডিপিইও) মো. আবদুর রশিদ পাটওয়ারীর (৭৫) জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বাদ যোহর লাওকোরা গ্রামের পাটওয়ারী বাড়িতে জানাযার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। ওই সময় মরহুমের কর্ম জীবনের উপর স্মৃতিচারণ করেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি মোঃ আবুল বাশার সরদার, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী বিএনপির কেন্দ্রীয় শ্রমিকদলের নেতা আনোয়ার হোসাইন, লাওকোরা গ্রামের বাসিন্দা সৈয়দ শরিফুল ইসলাম ও সাবেক ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন। মরহুমের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে আবুল বাশার সরদার বলেন, একজন সন্তানের মত আমাকে আদর করতেন। তিনি আমাকে প্রাথমিক শিক্ষক হিসেবে প্রথম নিয়োগ দিয়েছেন তার হাত ধরে আমি চাকরীতে যোগদান করেছি। তখন তিনি মতলব দক্ষিণ উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, পরে তিনি চাঁদপুর সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে। কর্ম জীবনের শেষপ্রান্তে এসে তিনি চাঁদপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে গভীর শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। এছাড়াও স্মৃতিচারণ করেন গ্রামের বাসিন্দা সৈয়দ শরিফুল ইসলাম বলেন, আমাদের গ্রামের একজন আলোকিত মানুষকে হারালাম। ব্রিটিশ আমলে প্রথমে শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। তারপর ক্রমে পদোন্নতি পেয়ে জেলা শিক্ষা অফিসার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে সাবেক ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন বলেন, লাওকোরা গ্রামের সামাজিক উন্নয়নে স্বাধীনতা যুদ্ধের আগে ও পরে তার অবদান রয়েছে। ১৯৭১ সালে যুদ্ধের সময় বেলঘরের হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনকে নিজের ঘরে ঠাঁই দিয়েছেন। এই কৃতি সন্তান সবসময় জনকল্যাণমূলক কাজে এগিয়ে এসেছে। এলাকার উন্নয়ন কাজে বিভিন্ন সময় পরামর্শ দিয়েছেন। মরহুমের জানাজার নামাজে অংশগ্রহণ করেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল মজুমদার, শিক্ষক আবদুস শাকুর মজুমদারসহ বিভিন্ন গ্রামের ও দূর-দূরান্তের শুভানুধ্যায়ীসহ কয়েক শতাধিক মুসল্লি। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, আলহাজ্ব আব্দুর রশিদ পাটোয়ারী কর্মজীবনে ইছাপুরা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, সীতাকুন্ড পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, রামগতি উপজেলার সহকারী শিক্ষা অফিসার, মতলব দক্ষিণ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, চাঁদপুর সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার এবং জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার স্ত্রী ও দুই ছেলে এবং এক কন্যা সন্তানসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি বার্ধক্যজনিত কারণে ঢাকায় রবিবার সকাল সাড়ে ১০ ঘটিকায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নিলিল্লাহে রাজিউন)। তিনি হাজীগঞ্জ উপজেলার ৮নং হাটিলা ইউনিয়নের লাওকোরা পাটওয়ারী বাড়ীর সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। মরহুমের প্রথম জানাজার নমাজ বাদ এশায় ঢাকার ঝিকাতলার গাবতলা জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়।

content_copyCategorized under