তৃতীয় পাতা , হাজীগঞ্জ

হাজীগঞ্জের মৈশামুড়া গীতা স্কুলের পুরুস্কার বিতরন

person access_time 3 months ago access_time Total : 75 Views

সুজন দাস ঃ হাজীগঞ্জ উপজেলার ৯নং গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়নের মৈশামুড়া চৌধুরী বাড়িতে ১০ মে শুক্রবার মৈশামুড়া সর্বজনীন গীতা স্কুলের শিক্ষার্থীদের নিয়ে সনাতন ধর্মের জ্ঞানের উপরে প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়। প্রতি বছরে ন্যায় উক্ত গীতা স্কুলের পরিচালনা পরিষদ বিভিন্ন আয়োজন করে থাকে। উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপত্বি করেন মৈশামুড়া চৌধুরী বাড়ী হরি সভা কমিটির সভাপতি কানু লাল সরকার। সাধারণ সম্পাদক ও ওয়ার্ড মেম্বার রনজিৎ চৌধুরী। উক্ত অনুষ্ঠানে শারদাঞ্জলী ফোরাম নামের একটি সংগঠনের সহযোগীতার অনেক প্রাণবন্ত করে তোলেন চাঁদপুর জেলার সভাপতি রিপন সাহা ও শারদাঞ্জলী ফোরাম চাঁদপুর জেলার সদস্যরা এই সময়ে সবার উদ্দেশ্যে ধর্মীয় জ্ঞান ও গীতা চর্চা এবং গীতা পাঠের উপর গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন। বক্তারা বলেন ধর্ম প্রচারে উৎসাহিত করে, এই স্কুলে সাপ্তাহিক ধর্মীয় আলোচনা ও গীতার উপদেশ জীবন দশায় কাজে লাগানো এবং প্রাত্যহিক গীতা পড়ার প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি করতে হবে। এ স্কুলে ছোট থেকে ধর্মীয় নৈতিক শিক্ষা দানে কাজ করছে। তাই সবার সহযোগিতার মাধ্যমে আগামীতে আমরা এ ধরনের প্রতিষ্ঠানকে সামানে এগিয়ে নিয়ে যাবো। এ সময় শারদাঞ্জলী ফোরাম এর আরো উপস্থিত ছিলেন সাধারন সম্পাদক শ্যামল চন্দ্র দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক: পংকজ চন্দ্র দাস, কোষাধ্যক্ষ সুমন বিশ^াস, প্রচার সম্পাদক সুজিৎ দেবনাথ, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক বিশ^জিৎ সরকার, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক কানাই মাষ্টার, সদস্য- সুমন চন্দ্র দাস, সোহেল সরকার (অভ্র), মানিক চন্দ্র সরকার, পলাশ দেবনাথ, মিঠুন সরকার। মৈশামুড়া চৌধুরী বাড়ি মন্দিরের কোষাধ্যক্ষ শুকুদেব সরকার, এই ছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন গুরুপদ শীল, উদ্দপ সরকার, প্রাণ বল্লব চৌধুরী, রেমা সরকার, গিরেন্ড সরকার। অনুষ্ঠানটি ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে মৈশামুড়া সনাতন ধর্মের ছোট থেকে বড় সকল বয়সের ভক্তরা এই গীতার স্কুলে উপস্থিত হয়ে। এই সময় স্কুল পরিচালনা কমিটির মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সুজন দাস, কানল বালা, নকুল সরকার, হৃদয় সরকার, তৃষ্ণা সরকার, সবুজ সরকার, ঝুটন সরকার, শ্রাবনী, প্রিংয়কা। অনুষ্ঠানের চাঁদপুর শারদাঞ্জী ফোরাম এর উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরুষ্কার হিসেবে গীতা প্রদান করা হয়। উৎসবে সমাপ্তিতে দেশ ও জাতীর জন্য প্রার্থনা ও মধ্যাহ্নে মহাপ্রভূর ভোগরাগ অন্তে মাহাপ্রসাদ বিতরণ করা হবে।

content_copyCategorized under