তৃতীয় পাতা , হাজীগঞ্জ

হাজীগঞ্জের মেরাজ হোসেন জাতীয়মানের হেফজুল কোরআন প্রতিযোগী মাইটিভিতে অংশগ্রহণ

person access_time 2 months ago access_time Total : 71 Views

এস এম মিরাজ মুন্সী/তোফায়েল আহম্মেদ, হাজীগঞ্জ ঃ হাজীগঞ্জ উপজেলার ৯নং গন্ধব্যপুর ইউনিয়ন এর অত্যন্ত স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পালিশারা রহিমানুর ক্যাডেট মাদ্রাসা। কৃতি শিক্ষার্থীদের মধ্যে মেরাজ হোসেন এর সফলতার ধারাবাহিকতায়জাতীয়মানের হেফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায়মাই টিভিতে অডিশনের সুযোগ পাওয়াতে মেরাজ হোসেনের পরিবারের পক্ষ থেকে মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম পাটোয়ারী সহ শিক্ষক, পরিচালক ও জেলাবাসী এবং দেশবাসীর নিকট কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন মেরাজ হোসেন উপজেলার দেশগাঁও মিজি বাড়ির জাহাঙ্গীর মিজির ছেলে, সে উপজেলা ও জেলাতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে প্রতিযোগিতায়অংশ নিয়ে ঢাকায় কয়েকটি অডিশনে অতিক্রম করে মাই টিভিতে গিয়ে হেফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা করার সৌভাগ্য অর্জন করেছে। জানতে চাইলে, মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা সিরাজুল ইসলাম পাটোয়ারী বলেন জীবনের সকল কিছু করেছি নিজের জন্য, শুধু আখেরাতের জন্য রহিমানুর ক্যাডেট মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেছি, আমার চাওয়া-পাওয়া হচ্ছে প্রতিটি শিক্ষার্থী তাদের যোগ্যতার পরিচয় দিয়ে হেফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় আগামীতেও জাতীয় পর্যায়ে ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সুনাম অক্ষুন্ন রাখবে,এই কামনা করি দেশবাসীর নিকট। মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও মুহতামিম জাইনুল আবেদীন বলেন, মহান রাব্বুল আলামিনের অশেষ শুকরিয়া শিক্ষার্থীদের পেছনে যে মেহনত করা হয়, সে অনুযায়ী আল্লাহপাক পুরস্কার প্রদান করেন। রহিমানুর ক্যাডেট মাদ্রাসার প্রথম শাখা পালিশারায় দ্বিতীয় শাখা হাজীগঞ্জ বকুলতলা রোডে, দুটি প্রতিষ্ঠানে একইভাবে পাঠদানের ব্যবস্থা সহ জাতীয়মানের আদর্শ শিক্ষার্থী তৈরীর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। অভিভাবক ও স্থানীয়রা বলেন রহিমানুর ক্যাডেট মাদ্রাসার বৈশিষ্ট প্রযুক্তিগত ও আধুনিকায়নের মাধ্যমে অন্যান্য প্রতিষ্ঠান থেকে ব্যতিক্রম বলেই এতগুলো প্রতিষ্ঠানে থাকার পরেও প্রতিবছর শিক্ষার্থীরা ভালো ফলাফল অর্জন করছে, মেরাজ হোসেন কেন আগামীতে মাদ্রাসি থাকলে আরো বহু মেরাজ হোসেন তৈরীর কারখানা রূপান্তরিত হবে পত্র প্রতিষ্ঠানটি।

content_copyCategorized under