শেষ পাতা , শাহরাস্তি , ব্রেকিং নিউজ

শাহরাস্তিতে বজ্রপাতে মৃত গাছই মাথার বাজ

person access_time 11 months ago access_time Total : 329 Views

মো.মাসুদ রানা,শাহরাস্তি ঃ শাহরাস্তিতে একটি জনবহুল রাস্তায় তিন বছরের অধিক সময় বজ্রপাতে আঘাতে অন্তত বিশটি গাছ মরে অসাড় কাষ্ঠ হয়ে দাড়িয়ে রয়েছে। উপজেলার রায়শ্রী দক্ষিন ইউপি’র নাহারা গ্রামের মিয়াজী বাড়ি সংলগ্ন রাস্তায় এ অবস্থা বিরাজ করছে।এটি দেখার কেউ না থাকায় বিষয়টি রীতিমত স্থানীয়দের পথচারীদের মাথার বাজে পরিণত হওয়ায়, এখন আতংকের কারন হয়ে দাড়িয়েছে। এলাকাবাসী ও স্থানীয়রা জানায়, ওই ইউপি’র নাহারা পশ্চিমপাড়া পাটওয়ারী বাড়ীর মৃত নুরুল হকের পুত্র আবুল খায়ের(৫০),২০১৬ সালের বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টি দেখে রাস্তার পাশে এক বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছিলেন। ওই সময় হঠাৎ সেখানে বিকট শব্দ করে বজ্রপাত হয়। সে সময় আশ্রিত গৃহে বিকট শব্দ আগুনের ফুলকিতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।ওই যাত্রায় তিনি কৃষক বেঁচে গেলেও পরে কিছু দিন গড়াতে রাস্তায় দন্ডায়মান গাছগুলোতে বজ্রপাতের প্রভাব ও আঘাতের চিহৃ স্পষ্ট হতে শুরু করে। তার পর আস্তে আস্তে করে রাস্তার পাশের দাড়ানো শীশু গাছ গুলো মরতে শুরু করে। বর্তমানে গাছগুলো শুকিয়ে ভংয়কর অসাড় কাষ্ঠে রুপ নিয়ে স্থানীয়দের মাথায় বাজ পড়ার মতো অবস্থায় এখনো দাড়িয়ে রয়েছে।
এবিষয়ে বেরকি গ্রামের এনাম হোসেনের পুত্র রিক্সা শ্রমিক শাহনেওয়াজ (২৩) বলেন,প্রতিদিন আমি সহ শত শত জানবাহন এ রাস্তায় মরা গাছের নিচ দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছে। তাছাড়া খানিকটা পূর্ব দিকে গেলে পরানপুর ফাজিল মাদ্রাসা, পশ্চিমে নাহারা সপ্রাবি । এ দুই প্রতিষ্ঠানে শত শত শিক্ষার্থী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পার হচ্ছে। একই ভাবে পরানপুর গ্রামের শেয়ার বাজারের ক্ষুদ্র ব্যাবসায়ী মোঃ নাছির হোসেন বলেন, আমি থাকি উপজেলা সদরে কিন্ত বাড়িতে আমার মাকে দেখতে প্রায় এ রাস্তায় যেতে হয়। গাছ গুলো যেন দেখার কেউ নেই।এদিকে ওই ইউপির চেয়ারম্যান আবু হানিফ বলেন,ওই গাছ গুলো আমিও মওে গেছে দেখিছি। তা ছাড়া একই রাস্তায় আরো শতাধিক গাছও অজ্ঞাত গাছ মরে দন্ডয়মান রয়েছে বলে তিনি নিশ্চিত করেণ।শাহরাস্তি উপজেলা সাবেক বন কর্মকর্তা শাহ আলম মুঠোফোনে জানান, আমি ওই কর্মস্থলে থাকা অবস্থায় বিষয়টি নিয়ে কেউ অভিযোগ করেনি।বর্তমানে আমি বদলি জনিত কারনে কুমিল্লায় রয়েছি।

content_copyCategorized under