প্রথম পাতা , শীর্ষ খবর , ব্রেকিং নিউজ

মান্দারীতে পিকআপের চাপায় ১ নারী নিহত ॥ আহত ২

person access_time 1 year ago access_time Total : 235 Views

মহসীন আলমঃ চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কের সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের মান্দারী চেয়ারম্যান মার্কেটের সামনে ইট বোঝাই পিকআপের চাপায় ঝর্ণা বেগম নামে এক নারী নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরো দু’জন। জানা যায়, ১১ জুন মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার সময় পূর্বমূখী ইট বোঝাই পিকআপের চাপায় পিষ্ট হয়ে হাজীগঞ্জ উপজেলার বাকিলা ইউনিয়নের দক্ষিণ শ্রীপুর পঞ্চায়েত বাড়ীর প্রবাসী শাহালম মিজির স্ত্রী ৩ সন্তানের জননী ঝরনা বেগম (৩৫) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। তার সাথে থাকা আরো দু’জন আহত হয়। তারা হচ্ছে- চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের মান্দারী জলিল বেপারী বাড়ির মমতাজ বেগম (৫০) ও ফরিদগঞ্জ উপজেলার চান্দ্রা লোহাগর মুন্সি বাড়ির ফয়েজ মুন্সির মেয়ে ফারজানা আক্তার (১৭)। পিকআপের চাপায় আহত হয়ে মমতাজ বেগমকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং ফারজানাকে এলাকাবাসী উদ্ধার করে স্থানীয় একটি বাড়িতে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে। খবর পেয়ে চাঁদপুর সদর মডেল থানার এসআই মিরাজ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে আসেন। এরপর ওসি (তদন্ত) হারুনুর রশিদ এসে পরিস্থিতি স্বাভাবিক পর্যায়ে আনেন। প্রত্যক্ষদর্শী শাহাজান গাজী জানান, সকালে তারা ৩ জন রাস্তা পারাপারের সময় পশ্চিম দিক থেকে ইট বোঝাই পিকআপ এসে চাপা দিলে পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই ঝরনা বেগম মারা যান। অন্যরা আহত হয়। নিহত ঝরনার ভাসুরের ছেলে আল আমীন জানান, আমার কাকী ও তার তালতো বোন মমতাজ বেগম, ভাগনি ফারজানা আক্তার সকালে কবিরাজ দেখানোর জন্য বাড়ি থেকে রওনা দিয়ে মান্দারী এলাকায় চেয়ারম্যান মার্কেটের সামনে রাস্তার দক্ষিণ পাশে নামেন। এ সময় রাস্তা পারাপারের সময় পশ্চিম দিক থেকে আসা দ্রুতগামী পিকআপের নিচে পড়ে ঝরনা বেগম নিহত হয়েছেন। ঝরনা বেগমের ১৪, ১০ ও ৭ বছর বয়সী ৩টি ছেলে সন্তান রয়েছে। এ বিষয়ে চাঁদপুর সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) হারুনুর রশিদ জানান, ঘটনাস্থল থেকে নিহতের সুরতাহাল রিপোর্ট সংগ্রহ করে পরিবারের সদস্যরা লাশ নিয়ে যাবে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন চাঁদপুর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) হারুনুর রশিদ, এসআই মিরাজ, বাকিলা ইউপি চেয়ারম্যান ইউসুফ পাটওয়ারী ও মান্দারী ইউপি সদস্য কামরুল মোল্লা প্রমূখ।

content_copyCategorized under