প্রথম পাতা , শীর্ষ খবর , ফরিদগঞ্জ , ব্রেকিং নিউজ

ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনেনৌকা প্রতীক নিয়ে জাহিদুল ইসলাম রোমান মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন

person access_time 2 months ago access_time Total : 73 Views

স্টাফ রিপোর্টার ঃ আগামী ২৪ মার্চ ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোগগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তিন জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৮ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে চেয়ারম্যান প্রার্থী তিনজনের মধ্যে একজন এবং ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ১৪ জনের মধ্যে ১৩ জন মাঠে রয়েছেন। তারা নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। এসব প্রার্থীর গণসংযোগ, উঠোন বৈঠক ও পথসভা ছাড়াও প্রতিদিন দুপুর ২টার পর থেকে শুরু হয় মূল প্রচারণা তথা মাইকিং। একযোগে উপজেলার প্রতিটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে ১৪ জন প্রার্থীর সমর্থনে প্রচার যন্ত্র। চেয়ারম্যান পদে নৌকা, ভাইস চেয়ারম্যান পদে টিয়া পাখি, বই, উড়োজাহাজ, তালা, টিউবওয়েল, চশমা, মাইক এ কটির প্রচারই শোনা যাচ্ছে বেশি। চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী তিনজন হলেও মাঠে রয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী চাঁদপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমান। প্রতীক বরাদ্দের পূর্বে জনগণের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করলেও প্রতিক পাওয়ার পর থেকে তিনি উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামে হেটে বেড়াচ্ছেন এবং নৌকা মার্কায় ভোট চাচ্ছেন। এ সময় তিনি ভোটারদের উদ্দেশ্যে বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা ফরিদগঞ্জ উপজেলার জন্যে নৌকা আমার হাতে তুলে দিয়েছেন, আর আমি সে নৌকা জনগণের হাতে তুলে দিয়েছি। তাই নৌকাকে বিজয়ী করার দায়িত্বও জনগণের। আমি তাদের সাথে নিয়ামক শক্তি হিসেবে কাজ করবো। তিনি বলেন, দেশের জনগণ গত ১০ বছরে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন দেখেছে। সেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে মানুষ উন্নয়নের প্রতীক নৌকাকেই বেছে নেবে এটাই স্বাভাবিক। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সম্পর্কে তিনি বলেন, মাঠে না এসে শুধুমাত্র গুজব ও মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে নৌকার বিজয় ঠেকানো সম্ভব নয়। ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাঠে আছেন ৭ জন। এরা হলেন : উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াহিদুর রহমান রানা (টিয়া পাখি), ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজের সাবেক জিএস তছলিম আহমেদ (বই), প্রজন্মলীগের কেন্দ্রীয় নেতা আবু সুফিয়ান (চশমা), সুবিদপুর পূর্ব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন বাবু (মাইক), উপজেলা যুবলীগ নেতা কামরুজ্জামান সবুজ (তালা), যুবলীগ নেতা পাবেল হোসেন পাটওয়ারী (উড়োজাহাজ) ও এনামুল হক খোকন পাটওয়ারী (টিউবওয়েল)। এদের মধ্যে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াহিদুর রহমান রানা বলেন, আমি ৫ বছর উপজেলাবাসীর সেবা করেছি। জনগণ এই ৫ বছরের জের টেনে যদি আমাকে ভাল মনে করে তবে অবশ্যই নির্বাচনে তারা আমাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবে। ভাইস চেয়ারম্যান পদের আরেক প্রার্থী ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজের সাবেক জিএস ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি তছলিম আহাম্মেদ বলেন, মানুষ ভাল ও মন্দ সবই জানে। আমি দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত থাকার সুবাদে চেষ্টা করেছি সাধারণ মানুষের সুখে-দুঃখে পাশে থাকার। কোনো মানুষকে ক্ষতি করার চেষ্টাও কখনো করিনি। তাই বিশ্বাস করি নির্বাচনে তার প্রতিদান পাবো। এছাড়া অন্য সকল প্রার্থীরই বিশ্বাস তারা বিজয়ী হবেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান (সংরক্ষিত) পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ৬ জন হলেন : সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রী সেলিনা আক্তার (প্রজাপতি), মাজেদা বেগম (ক্যামেরা), উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হালিমা বেগম (পদ্মফুল), বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা রিনা নাসরিন (হাঁস), যুব মহিলা লীগ নেত্রী রেহানা আক্তার (পদ্মফুল) এবং বিএনপি নেত্রী সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান রেবেকা সুলতানা (কলস)। এদের মধ্যে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান রিনা নাসরিন বলেন, ৫ বছরে আমি আমার সাধ্য অনুযায়ী জনগণের সেবা করার আপ্রাণ চেষ্টা করেছি। আশা করছি এবারো জনগণ বিমুখ করবে না। এলাকাবাসীর সাথে থেকে তাদের জন্যে কাজ করতে চাই। আশা করি আগামী ২৪ মার্চ জনগণ আমাকে আবারো নির্বাচিত করে এ কাজের ধারাবাহিকতা রক্ষা করবে।

শেয়ার করুনঃ
content_copyCategorized under