প্রথম পাতা , শীর্ষ খবর , ফরিদগঞ্জ , ব্রেকিং নিউজ

ফরিদগঞ্জে মহাসড়ক-বেড়ি বাঁধে পশুরহাট ॥ দীর্ঘ যানজট-ভোগান্তি

person access_time 4 months ago access_time Total : 120 Views

আবু হেনা মোস্তফা কামাল, ফরিদগঞ্জ: ফরিদগঞ্জে মহাসড়কে অবৈধ পশুর হাটের কারণে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। ভোগান্তিতে পড়েছে শত শত যানবাহন ও যাত্রী সাধারণ। প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী এই যানজট লেগেছিলো। খবর পেয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইন-চার্জ আব্দুর রকিব-এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ উপস্থিত হন ঘটনাস্থলে। তাদের প্রায় দেড় ঘন্টার চেষ্টায় সড়ক থেকে পশু সরিয়ে যানচটমুক্ত করতে সক্ষম হন। ঘটনা ঘটেছে গতকাল বিকালে চাঁদপুর-লক্ষ্মীপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের স্থানীয় নারিকেলতলা নামক এলাকায়। এদিকে, ২নং বালিথুবা ইউনিয়নের একতা বাজার নামক এলাকায় অবৈধ পশুরহাট বসেছে ওয়াপদা বেড়ী বাঁধের ওপর। এতে হুমকির পড়েছে বেড়ীবাঁধ। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নারিকেলতলা নামক স্থানে মহাসড়কের পাশে পশুরহাট বসেছে। সেখানে কোনো কোনো মাঠ নেই। বেপারীগণ সেখানে কয়েক হাজার পশুর সমাগম ঘটায়। পশু ক্রয় করতে ও দেখতে কয়েক হাজার মানুষ ভীড় জমায় সেখানে। ফলে, বেলা তিনটা হতে সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজট। পশুর হাটের দুইদিকে এ যানজট দীর্ঘ হয় প্রায় আট কিলো

মিটারব্যাপী। যানজটে দাঁড়িয়ে থাকা সুনামী নামক বেকারীর কাভার্ড ভ্যান চালক শাহীন আলম জানান, তিনি প্রায় দুই ঘন্টা আটকে আছেন এ যানজটে। একই অভিযোগ করেছেন বিভিন্ন যানজটের চালকগণ। এদিকে, খবর পেয়ে বেলা চারটা নাগাদ অন্তত পনেরজন পুলিশ সদস্য সঙ্গে নিয়ে সেখানে ছুটে যান ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইন-চার্জ আব্দুর রকিব। তিনি সড়ক থেকে পশু সরিয়ে নিতে নির্দেশ দেন। কিন্তু, এতে কোনো কাজ হচ্ছিলো না। ওদিকে যানজট দীর্ঘ হতে থাকে। এক পর্যায়ে পুলিশ সদস্যগণসহ নিজেই সড়কের পাশে বাঁধা পশুর বাঁধন খুলে দিতে শুরু করেন। অন্যদিকে, সড়কে জড়ো হওয়া হাজার মানুষকে সরে যেতে অনুরোধ করেন। এতে, প্রায় দেড় ঘন্টার চেষ্টায় যানজট কমতে শুরু হয়। বেলা ৬ টা নাগাদ মুক্ত হয় যানজট। এ বাজারের টেন্ডার গ্রহীতা শাহ আলমকে এ সময় খুঁজে পাওয়া যায়নি। এদিকে, ২নং

বালিথুবা ইউনিয়নের একতা বাজার এলাকায় চাঁদপুর সেচ প্রকল্পের বেড়ী বাঁধের ওপর বসেছে পশুরহাট। বেড়ী বাঁধে পশু বাঁধা বা রাখার কোনো জায়গা নেই। বাজারের টেন্ডা গ্রহীতা আব্দুল হাই মেম্বার বাঁধের দুই পাশের মাটি কেটে ফেলেছেন। সেখানে এক ধরনের সমতলের মতো করে পশুরহাট মিলিয়েছেন তিনি। সরকারের দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষ এসব স্থানে পশুর হাট বসাতে নিশেধ করেছেন। তা সত্ত্বেও, এসব স্থানে পশুরহাট কি করে বসলো প্রশ্ন ভূক্তভোগী জনগণের। নারিকেলতলা এলাকায় যানজটমুক্ত করার সময় কথা হয় থানার অফিসার ইন-চার্জ আব্দুর রকিব-এর সঙ্গে। তিনি বলেন, দীর্ঘ যানজটের খবর পেয়ে আমরা ছুটে এসেছি। মহাসড়কে পশুরহাট বসিয়ে মানুষের ভোগান্তির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সকলের সহযোগিতায় যানজটমুক্ত করতে পেরেছি, এটাই বড় কথা। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য মুঠোফোনে কল দেয়া হয় ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) সহকারী কমিশনার (ভূমি) মমতা আফরিনকে। তিনি কল রিসিভ করেননি।

content_copyCategorized under