প্রথম পাতা , চাঁদপুর সদর , শীর্ষ খবর , ব্রেকিং নিউজ

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক নেতা ইকরাম চৌধুরীর ইন্তেকাল

person access_time 3 months ago access_time Total : 217 Views

শ্যামল চন্দ্র দাস ঃ চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি, চ্যানেল আইয়ের স্টাফ রিপোর্টার, জাগো নিউজের জেলা প্রতিনিধি এবং দৈনিক চাঁদপুর দর্পণ এর পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক, সাংবাদিক নেতা ইকরাম চৌধুরী আর নেই। গতকাল ৮ আগস্ট শনিবার ভোর সাড়ে ৪টায় ঢাকা ধানমন্ডী জেনারেল এ- কিড্নী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৫ বছর। ১ ছেলে, ১ মেয়ের জনক ইকরাম চৌধুরী স্ত্রী, ৫ ভাই ও ৩ বোনসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন-গুণগ্রাহী এবং সহযোদ্ধা সাংবাদিক রেখে গেছেন।
চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরাম চৌধুরী মৃত্যুর সংবাদ তাৎক্ষণিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশের পর সাংবাদিকসহ বিভিন্ন মহলে শোকের ছায়া নেমে আসে। ইকরাম চৌধুরীর দীর্ঘদিনের সহযোদ্ধা কলম সৈনিকরা একে অন্যকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানাতে থাকে। ইতিমধ্যে চ্যানেল আইসহ বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে সাংবাদিক ইকরাম চৌধুরীর মৃত্যুর সংবাদ বাংলাদেশসহ বিভিন্ন প্রান্তরে প্রচার হয়ে যায়।
এদিকে ঢাকায় হাসপাতালের সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করে চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিএম শাহীন এবং মরহুম ইকরাম চৌধুরীর একমাত্র ছেলে আবরার চৌধুরী সহকারে লাশ বহনগাড়ী সকাল সোয়া ৯টায় চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। দুপুর সাড়ে ১২টায় চাঁদপুর শহরের নাজিরপাড়াস্থ নিজ বাসভবনে এসে পৌঁছে। আসার সাথে সাথে গোসল সমাপ্ত করে পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে বিদায় নিয়ে বিকেল পৌনে ৪টায় প্রথমে তার পরিচালিত পত্রিকা দৈনিক চাঁদপুর দর্পণের সামনে কিছুক্ষণ রাখা হয়। এরপর সাংবাদিক ইকরাম চৌধুরীর কষ্টার্জিত এবং স্বপ্নের গড়া চাঁদপুর প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে নিয়ে আসা হয়। এখানে চাঁদপুর প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ ছাড়াও স্থানীয় পত্রিকাগুলোতে কর্মরত সংবাদকর্মী এবং প্রতিটি উপজেলা প্রেসক্লাবের সদস্যরা এসে প্রথম জানাজায় অংশ নিতে সমবেত হয়।
চাঁদপুর প্রেসক্লাব প্রাঙ্গনে প্রথম জানাজার পূর্বে সাংবাদিক নেতা ইকরাম চৌধুরীর প্রতি শ্রদ্ধা এবং অন্তরের ভালোবাসা ব্যক্ত করে সংক্ষিপ্তভাবে এক এক করে স্মৃতিচারণ করেন। চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আহসান উল্যাহ আবেগে আপ্লুত হয়ে সংক্ষিপ্ত স্মৃতিচারণ পর্বটি পরিচালনা করেন।
মোবাইলের মাধ্যমে মরহুমের কর্মময় জীবন নিয়ে স্মৃতিচারন করেন শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি, জাতীয় প্রেসক্লাব সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও জাগো নিউজের সম্পাদক ও প্রকাশক মহিউদ্দিন সরকার, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাংবাদিক নেতা কাজী শাহাদাত, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি জালাল চৌধুরী, গোলাম কিবরিয়া জীবন, শহীদ পাটোয়ারী, ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী ও বিএম হান্নান ও সহ-সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিলন, জেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটোয়ারী, সাবেক সাধারন সম্পাদক রহিম বাদশা, সোহেল রুশদি, জিএম শাহিন, মির্জা জাকির ও লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধর, প্রেসক্লাব কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান সুমন, এ্যাডঃ শাহজাহান মিয়া, রোকনুজ্জামান রোকন, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আল ইমরান শোভন ও সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস, ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি একে আজাদ ও সাধারণ সম্পাদক তালহা জুবায়ের, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি কামরুজ্জামান, কচুয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি রাকিবুল হাসান, মতলব উত্তর প্রেসক্লাবের সামছুজ্জামান ডলার, মতলব প্রেসক্লাবের সভাপতি শ্যামল চন্দ্র দাস, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের পক্ষে হাবিবুর রহমান প্রমুখ। চাঁদপুর প্রেসক্লাবের জানাজায় ইমামতি করেন সাংবাদিক মাওলানা আব্দুর রহমান। পরিবারের পক্ষ থেকে দৈনিক চাঁদপুর দর্পণের প্রধান সম্পাদক ও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শরীফ চৌধুরী মরহুমের পক্ষ থেকে সবার কাছে ক্ষমা ও দোয়া চেয়ে বক্তব্য রাখেন।
এছাড়া বাদ আছর চাঁদপুর সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে সাংবাদিক নেতা ও চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরাম চৌধুরীর পর পর দু’টি জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সরকারি নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রথম জানাজায় ইমামতি করেন চাঁদপুর সরকারি কলেজ জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা নিজাম উদ্দিন। জানাজার পূর্বে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসকের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গণি পাটোয়ারী, জেলা বিএনপির সাবেক আহবায়ক মোঃ সফিউদ্দিন আহমেদ এবং ফরিদগঞ্জ ফাউন্ডেশনের পক্ষে সাংবাদিক মোশারফ হোসেন লিটন।
এরপর সর্বশেষ জানাজায় ইমামতি করেন, চাঁদপুর সরকারি কলেজের জিয়া ছাত্রাবাস জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা তোহা। দু’টি জানাজার সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন মরহুম ইকরাম চৌধুরীর বড় ভাই সাংবাদিক মুনির চৌধুরী ও ছোট ভাই সাংবাদিক শরীফ চৌধুরী। চাঁদপুর সরকারি কলেজ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত দু’টি জানাজায় অসংখ্য মুসল্লি এবং বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষজন উপস্থিত ছিলেন।
পর পর ৩টি জানাজা শেষে চাঁদপুর শহরের পৌর কবরস্থানে পিতা-মাতার কবরের পাশে সাংবাদিক ইকরাম চৌধুরীকে চিরনিদ্্রায় শায়িত করা হয়। মরহুম ইকরাম চৌধুরী দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন রোগে বিশেষ করে তাঁর দুটি কিডনী সম্পূর্ণ অকেজো হয়ে যায়। এছাড়া বেশ ক’ বছর পূর্বে স্ট্রোক করে চিকিৎসা নিয়েছেন। শুধু তাই নয়, ডায়বেটিক সমস্যায় তিনি বেশি অসুস্থ্য হয়ে পড়েন।
উল্লেখ্য, মরহুম ইকরাম চৌধুরীর পিতা ছিলেন তৎকালীন চাঁদপুর মহকুমার শিক্ষা অফিসার মোঃ দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী। শিক্ষা অফিসার থেকে অবসর নেয়ার পর মরহুমের পিতা ষোলঘর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক হিসেবে দীর্ঘ দিন শিক্ষকতা করেন।
পিতার চাকুরীর সুবাদে নাজিরপাড়ায় দীর্ঘ বছর ধরে বসবাস করে আসছেন। মূলত তাদের পৈত্রিক বাড়ী ফরিদগঞ্জ উপজেলার ২নং বালিথুবা ইউনিয়নের শোশাইরচর চৌধুরী বাড়ী।

content_copyCategorized under