প্রথম পাতা , ব্রেকিং নিউজ , কচুয়া

কচুয়ায় ছিনতাইকারীর অস্ত্রের আঘাতে ব্যবসায়ী রক্তাক্ত জখম ॥ আটক ২

person access_time 2 weeks ago access_time Total : 24 Views

মফিজুল ইসলাম বাবুল, কচুয়া ঃ কচুয়া উপজেলার ব্যবসায়ী এমরান হোসেন (৪৫) ছিনতাইকারীদের অস্ত্রের আঘাতে রক্তাক্ত জখম হয়েছে। সে হাসিমপুর-মিয়ার বাজারের মা ভ্যারাটিজ স্টোরের মালিক এবং বিকাশ ব্যবসায়ী। ব্যবসায়ী এমরান হোসেন ৭ সেপ্টেম্বর শনিবার দোকান বন্ধ করে বাড়ি যাওয়ার সময় পথিমধ্যে শ্রীরামপুর মাদ্রাসা বাজার ব্রীজের প্রায় ১শ’ গজ পূর্ব পার্শ্বে রাত ১১টার দিকে ৪/৫জন কতিপয় ছিনতাইকারী তার মোটর সাইকেলে গতিরোধ করে এবং তার হাত থেকে টাকা ভর্তি ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এ সময় এমরান হোসেন টাকার ব্যাগটা হাত থেকে না ছেড়ে চিৎকার দিয়ে তাদের সাথে ধস্তাধস্তি করে। এক পর্যায়ে ছিনতাইকারীরা এমরানকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এরই মধ্যে এমরানের চিৎকারে স্থানিয় লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে আসতে দেখে ছিনতাইকারীরা টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নিতে ব্যর্থ হয়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে হাসিমপুর-মিয়ার বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডাঃ শাহাদাত প্রধানসহ স্থানীয় লোকজন এমরানকে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার তার অবস্থার অবনতি দেখে কুমিল্লার কুচাইতলী হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখানেও তার অবস্থার আরো অবনতি হলে ঢাকা পিজি হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। কচুয়া থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে এবং সন্দেহ হিসেবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাসিমপুর গ্রামের মন্টু ও আল-আমিন নামে দু’জনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এছাড়াও ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ১জোড়া জুতা উদ্ধার করেছে। আটককৃত মন্টু ও আল-আমিন এলাকার চিহ্নিত অপরাধি এবং মাদকের সাথে জড়িতসহ তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে কচুয়া থানার এসআই মো. মনির হোসেন ঘটনাটি নিশ্চিত করে জানান, গতকাল রবিবার আটককৃত মন্টুকে কোর্টে চালান করা হয়েছে এবং আল-আমিনকে ছেড়ে দেয়া হয়। উল্লেখ্য ছিনতাইকারীর কবলে আহত ব্যবসায়ী এমরান হোসেনের গ্রামের বাড়ি কড়ইয়া ইউনিয়নের শ্রীরামপুরে। সে গাজী বাড়ির মৃত. নুরুল ইসলামের ছেলে।

content_copyCategorized under